1. [email protected] : শেয়ারখবর : শেয়ারখবর
  2. [email protected] : Admin : Admin
  3. [email protected] : muzahid : muzahid
  4. [email protected] : nayan : nayan
বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১২:২৩ অপরাহ্ন

যতদিন ব্যাংকের সারপ্লাস অর্থ থাকবে, ততদিন ভালো কোম্পানি শেয়ারবাজারে আসবে না

  • আপডেট সময় : রবিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ৩৭৩ বার দেখা হয়েছে
Faruk-1

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) সাবেক চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ সিদ্দিকী বলেছেন, যতদিন পর্যন্ত ব্যাংকে সারপ্লাস অর্থ থাকবে বা দীর্ঘমেয়াদি ঋণ দেওয়ার মতো অবস্থায় থাকবে, ততদিন পর্যন্ত ভালো কোম্পানি ফান্ড সংগ্রহের জন্য পুঁজিবাজারে আসতে চাইবে না।

রবিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) বিজনেস আওয়ার টোয়েন্টিফোর ডটকম’র উদ্যোগে “শেয়ারবাজারে ভালো কোম্পানির তালিকাভুক্তির প্রতিবন্ধকতা ও সমাধানের উপায়” শীর্ষক সেমিনারে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স এসোসিয়েশনের (বিএমবিএ) প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ ছায়েদুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন দি ইনস্টিটিউট অব কস্ট অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট অ্যাকাউন্টেন্টস অব বাংলাদেশ (আইসিএমএবি) এর প্রেসিডেন্ট মো: মামুনুর রশীদ (এফসিএমএ)। সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন বিজনেস আওয়ার টোয়েন্টিফোর ডটকমের উপদেষ্টা আকতার হোসেন সান্নামাত (এফসিএ) এবং অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন প্রতিষ্ঠানটির সম্পাদক ও প্রকাশক আমিরুল ইসলাম নয়ন।

ফারুক আহমেদ সিদ্দিকী বলেন, পুঁজিবাজার আর ব্যাংকিং সেক্টর এর মাঝে ব্যাংকিং সেক্টর ছেড়ে কোম্পানিগুলো কেন পুঁজিবাজারে আসবে। ব্যাংকিং সেক্টরে এখন পর্যন্ত ফাইন্যান্সিং খুব সহজ। ভালো কোম্পানিকে লোন দেয়ার জন্য ব্যাংকগুলোই মুখিয়ে আছে। আবার ব্যাংকের কস্ট অব ফান্ডও কম। তাহলে কি কারণে পুঁজিবাজারের এই দীর্ঘ সূত্রিতায় এবং নানা রকম জটিলতার মধ্য দিয়ে আসবে। সুতরাং যতদিন পর্যন্ত ব্যাংকে সাফিসিয়েন্ট লিকুইট থাকবে, লংটার্ম ফাইন্যান্স করার মতো অবস্থা থাকবে, ততদিন পর্যন্ত ভালো কোম্পানি ফান্ড সংগ্রহের জন্য পুঁজিবাজারে আসতে চাইবে না।

বিএসইসির সাবেক চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের অর্থনীতির সঙ্গে পুঁজিবাজারের কোনো মিল খুঁজে পাই না। ১৯৯৬ বা ২০১০ সালে যখন পুঁজিবাজারে ধস হয়, তখন আমাদের অর্থনীতি কিন্তু খারাপ ছিল না। শুধু অর্থনৈতিক কারণে ধস হয় নাই। আবার অর্থনীতি ভাল হলে পুঁজিবাজার চাঙ্গা হয়েছে নতুন নতুন কোম্পানি তালিকাভুক্ত হয়েছে, তা কিন্তু নয়।

তিনি বলেন, আমাদের অর্থনীতিতে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি করেছি, কিন্তু পুঁজিবাজারে তেমন কোনো অগ্রগতি হয়নি বললেই চলে। গত কয়েক বছর যেসব কোম্পানি পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়েছে, সেগুলোর মধ্যে ভালো কোম্পানি কম। অথচ পুঁজিবাজারের বর্তমান যে অবস্থা, বাজারের মূল সমস্যাই হলো আপনি কোথায় ইনভেস্ট করবেন। ইনভেস্ট করার মতো কোম্পানিতো সামান্য কিছু। ভালো ইন্ডাস্ট্রিগুলো ভালো ব্যবসাগুলো লিস্টিং থেকে দূরে আছে।

গত ২০ বছর শুধু আলোচনাই হয়েছে উল্লেখ করে ফারুক আহমেদ আরো বলেন, কিন্তু দুই, চার, পাঁচটা ছাড়া ভালো কোম্পানি আসেনি। প্রথম সমস্যা হলো আমরা তো গ্রিন ফিল্ড কোম্পানি আনিনি। এক্সিস্টিং ভালো কোম্পানি কেন আসছে না। তারা আসতে পারে ব্যবসা সম্প্রসারণ হলে তার জন্য ফান্ড প্রয়োজন হয়।

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ