1. [email protected] : শেয়ারখবর : শেয়ারখবর
  2. [email protected] : Admin : Admin
  3. [email protected] : muzahid : muzahid
  4. [email protected] : nayan : nayan
সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৮:০৩ পূর্বাহ্ন

ওয়ালটন থেকে ৪০০ টন এসি নিচ্ছে ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স

  • আপডেট সময় : শনিবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২২
  • ৪০৮ বার দেখা হয়েছে
walton 1

দেশের শীর্ষ ইলেকট্রনিক্স ও ইলেকট্রিক্যাল পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ওয়ালটনের কাছ থেকে ৪০০ টন এসি নিচ্ছে ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। সম্প্রতি ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের কাছ থেকে এ সংক্রান্ত একটি কার্যাদেশ পেয়েছে ওয়ালটন। কার্যাদেশের আওতায় ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসি সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ১.৫, ২, ৩, ৪ ও ৫ টনের স্প্লিট ও লাইট কমার্সিয়াল এয়ার কন্ডিশনার সরবরাহ করবে। রাজধানীর তোপখানা রোডের ফারইস্ট টাওয়ার ভবনে এসব এসি ইনস্টল করা হবে।

বুধবার (২০ এপ্রিল, ২০২২) রাজধানীতে ওয়ালটনের করপোরেট অফিসে এ সংক্রান্ত কার্যাদেশের একটি কপি ওয়ালটনের এইচভিএসি অ্যান্ড লাইট কমার্সিয়াল সেকশনকে হস্তান্তর করেন ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

সে সময় উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটনের ডেপুটি এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ও এইচভিএসি অ্যান্ড লাইট কমার্সিয়াল সেকশনের ইনচার্জ খন্দকার শাহরিয়ার মোর্শেদ, ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ডিরেক্টর ড. মো. ইব্রাহিম হোসাইন খান, প্রজেক্ট ডিরেক্টর প্রকৌশলী মো. ইব্রাহিম প্রমুখ।

খন্দকার শাহরিয়ার মোর্শেদ বলেন, ‘দেশেই নিজস্ব কারখানায় উৎপাদিত আন্তর্জাতিকমানের বিদ্যুৎসাশ্রয়ী স্প্লিট, লাইট কমার্সিয়াল ও ভিআরএফ (ভেরিয়্যাবল রেফ্রিজারেন্ট ফ্লো) এসি বাজারজাত করছে ওয়ালটন। শিল্প-কারখানা, করপোরেট প্রতিষ্ঠান, শপিং মল, হাসপাতাল, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, আবাসিক ভবনসহ মাঝারি ও বড় আকারের বেশিরভাগ স্থাপনাতেই বেড়েছে ওয়ালটন এসির চাহিদা। এরই ধারাবাহিকতায় স্বনামধন্য এই ইনস্যুরেন্স কোম্পানি থেকে এসি সরবরাহের কার্যাদেশ পেলো ওয়ালটন। দেশীয় ও মাল্টিন্যাশনাল প্রতিষ্ঠানগুলোতে ওয়ালটন পণ্য পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে করপোরেট বিভাগ উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছে। আমরা এ খাতে করপোরেট প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি।’

ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের প্রজেক্ট ডিরেক্টর প্রকৌশলী মো. ইব্রাহিম বলেন, ‘ওয়ালটন বাংলাদেশের ইলেকট্রনিক্স জায়ান্ট। দেশের চাহিদা মিটিয়ে এসিসহ অন্যান্য পণ্য তারা বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রপ্তানি করছে। আমাদের অফিস ভবনগুলোতেও বাংলাদেশে তৈরি পণ্যের ব্যবহার বাড়াতে চাই। সেজন্যই ওয়ালটন কারখানায় তৈরি এসি কেনার কার্যাদেশ পাঠিয়েছি আমরা।’

উল্লেখ্য, ওয়ালটনের প্রতিটি এসি আন্তর্জাতিকমানের টেস্টিং ল্যাব নাসদাত-ইউটিএস থেকে মান নিয়ন্ত্রণের পর বাজারজাত করা হয়। আন্তর্জাতিকমানের ওয়ালটন এসি ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রপ্তানি হচ্ছে।

স্কুল-কলেজ, মসজিদ, মাদরাসা, হাসপাতাল, হোটেল, রেস্টুরেন্ট ও কনফারেন্স হলের মতো মাঝারি স্থাপনার জন্য ৪ ও ৫ টনের ক্যাসেট এবং সিলিং টাইপ এসি উৎপাদন ও বাজারজাত করছে ওয়ালটন। আবাসিক ভবন, ফ্ল্যাট বাড়িসহ ছোট-বড় সব ধরনের স্থাপনার জন্য ওয়ালটনের আছে ভিআরএফ এবং চিলার। আর গৃহে ব্যবহারের জন্য আছে অসংখ্য মডেলের ১, ১.৫ ও ২ টনের স্প্লিট টাইপ এসি। রাজধানীসহ সারা দেশের বিভিন্ন করপোরেট অফিস ও সুপারশপে ওয়ালটনের উচ্চ প্রযুক্তির কমার্শিয়াল এসি ইনস্টল করা হচ্ছে।

এসিতে এক বছরের রিপ্লেসমেন্টের পাশাপাশি কম্প্রেসরে ১০ বছরের গ্যারান্টি দিচ্ছে ওয়ালটন। দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা দিতে আইএসও সনদপ্রাপ্ত সার্ভিস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের আওতায় সারা দেশে ওয়ালটনের রয়েছে ৭৭টি সার্ভিস সেন্টার। পাশাপাশি প্রায় ৩০০ সার্ভিস পার্টনারের মাধ্যমে দেশব্যাপী এসির গ্রাহকদের সেবা দিচ্ছে ওয়ালটন। ওয়ালটনের দক্ষ ও অভিজ্ঞ প্রকৌশলী এবং টেকনিশিয়ানরা প্রতি ১০০ দিন পর পর এসি ক্রেতাদের ফ্রি সার্ভিস দিচ্ছেন।

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ